স্টাফ রিপোর্টার, অনুসন্ধানবার্তা :

বগুড়ার ধুনট উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের চুনিয়াপাড়া গ্রামের সরকারী খাস জমি সহ কয়েকটি দরিদ্র পরিবারের ২ শতাধিক গাছ কেটে বিক্রির ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

বুধবার (১১ আগষ্ট) রাতে ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মিনহাজ উদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের অসামী করে ধুনট থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, সরকারী খাস জমি থেকে কে বা কারা গাছ কেটে বিক্রি করেছেন এবিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা। অভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা হিসেবে রেকর্ডভুক্ত করা হয়েছে। এবিষয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ধুনট উপজেলার গোসাইবাড়ী ইউনিয়নের চুনিয়াপাড়া গ্রামে সরকারী খাস ১০৩ শতক জমিতে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ৪৩টি বাড়ি নির্মানের জন্য জায়গা নির্ধারণ করেন ধুনটের ইউএনও সঞ্জয় কুমার মহন্ত ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরকত উল্লাহ্।

এদিকে জায়গা নির্ধারনের পর ব্যক্তিগত গাছগুলো কর্তন করতে স্থানীয়দের নির্দেশ দেন এবং সরকারী জমির গাছগুলো নিলামের উদ্যোগ নেন ইউএনও।

কিন্তু ইউএনও’র নির্দেশনা অমান্য করে এবং ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে সরকারী জমির গাছ সহ ব্যক্তি মালিকানাধীন ২ শতাধিক গাছ কর্তন করে বিক্রি করে দনে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা। এই গাছ কাটা নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

এবিষয়ে মঙ্গলবার একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করে অনুসন্ধানবার্তা। যার শিরোনাম ছিলো ‘ধুনটে গরীবের ২ শতাধিক গাছ কেটে বিক্রি করলেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা’।
ধুনটে গরীবের ২ শতাধিক গাছ কেটে বিক্রি করলেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা
দেখুন ভিডিওতে।।